ত্রিপুরা (ভারত)-কুমিল্লা (দঃ উপকেন্দ্র) (বাংলাদেশ) গ্রীড আন্ত:সংযোগ এর শুভ উদ্বোধন।

ত্রিপুরা (ভারত)-কুমিল্লা (দঃ উপকেন্দ্র) (বাংলাদেশ) গ্রীড আন্ত:সংযোগ এর শুভ উদ্বোধন ০৯ চৈত্র ১৪২২ বঙ্গাব্দ / ২৩ মার্চ, ২০১৬ খ্রীষ্টাব্দ, বুধবার

২৩ মার্চ ২০১৬ বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মি. নরেন্দ্রমোদী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ-ভারত দ্বিতীয় গ্রীড আন্তঃসংযোগের শুভ উদ্বোধন করবেন।

বিদ্যুৎ খাতের যৌথ সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে Joint Working Group/Joint steering Committee ’র ঢাকায় অনুষ্ঠিত সপ্তম সভায় বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে পূর্বাঞ্চলে দ্বিতীয় আন্তঃসংযোগ গ্রীড স্থাপন বিষয়ে আলোচনা হয়। এরপর ত্রিপুরার (ভারত) পালাটানা থেকে বাংলাদেশের কুমিল্লা হয়ে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানীর বিষয়ে সম্ভাবতা যাচাই এবং সুপারিশ প্রদানের জন্য যৌথ কারিগরী কমিটি গঠন করা হয়। উক্ত কমিটি যাচাই বাচাই পূর্বক রেডিয়াল Synchronous সংযোগের মাধ্যমে ত্রিপুরা (ভারত) হতে কুমিল্লা (দক্ষিণ) উপকেন্দ্রে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির সুপারিশ করে। ভবিষ্যৎ প্রয়োজনের কথা বিবেচনায় নিয়ে কারিগরী কমিটি’র সুপারিশ অনুযায়ী ত্রিপুরা হতে কুমিল্লা (উঃ) উপকেন্দ্র পর্যন্ত ৪০০ কেভি (প্রাথমিক ভাবে ১৩২ কেভিতে চার্জ করা হবে) সঞ্চালন লাইন,  কুমিল্লা (উঃ) উপকেন্দ্র হতে কুমিল্লা (দঃ) উপকেন্দ্র পর্যন্ত ১৩২ কেভি সঞ্চালন লাইন এবং কুমিল্লা (দঃ) উপকেন্দ্রে দুইটি ১৩২ কেভি নির্মিত হয়েছে। পরবর্তীতে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ আমদানীর সিদ্ধান্ত হলে কুমিল্লা (উঃ) উপকেন্দ্র সংলগ্ন এলাকায় HVDC ষ্টেশন নির্মাণ করে ৪০০ কেভি লাইনে আরও অধিক বিদ্যুৎ আমদানী করা যাবে।