শেষ হলো বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ-২০১৬

শেষ হলো বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ-২০১৬

ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬  

জাতীয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ-২০১৬ এর সমাপনী অনুষ্ঠান আজ স্থানীয় একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এমপি ও এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়কারী মোঃ আবুল কালাম আজাদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন আমরা এখন ১৫ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম এবং মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার পথে দ্রত অগ্রসরমান একটি দেশ। সরকাররে তাৎক্ষণিক,স্বল্প ও মধ্য মেয়াদী পরিকল্পনা সফলভাবে বাস্তবায়নের ফলে বর্তমানে দেশের বিদ্যুত পরিস্থিতি  স্বাভাবিক হয়েছে। জ্বালানি খাতেও হয়েছ প্রভূত উন্নয়ন। সারা দেশে কৃষি, শিল্প, আইটি, সেবাসহ সকল খাতে যে উন্নয়ন হয়েছে তাতে বিদ্যুতের অপরিসীম অবদান রয়েছে। আজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। আগামীর কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহের কার্যাবলী বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়কারী মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন বর্তমানে দেশের চার পঞ্চমাংশ জনগোষ্ঠী বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। তিনি বিদ্যুৎ মেলার আদলে স্বাভাবিক সময়েও দ্রুত বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিতরণ সংস্থা সমূহের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এমপি বলেন সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ-২০১৬ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তিনি বলেন এবারের জাতীয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ সাড়ম্বরে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত মেলায় ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। মেলায় প্রচুর দর্শক সমাগম হয়েছে। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে সরকারের সাফল্যের জন্যই জনগণের এই আগ্রহ বলে তিনি মন্তব্য করেন। উল্লেখ্য এবার বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মেলায় সরকারী বেসরকারী ১২৭টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে।

প্রতিমন্ত্রী অরো বলেন এবার বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তায় চারটি আন্তর্জাতিক সেমিনারের আয়োজন করা হয়। সেমিনারগুলোতে দেশী ও বিদেশী বিশেষজ্ঞরা স্মার্ট গ্রিড, কোল টেকনোলজী, বেস্ট প্র্যাকটিস ইন এনার্জি এন্ড পাওয়ার ইত্যাদি বিষয়ে কী-নোট পেপার উপস্থাপক ও প্যানেল আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করায় সেমিনারগুলো ভিন্ন মাত্রা পেয়েছে। এতে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের কর্মকর্তারা বিশেষভাবে উপকৃত হয়েছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন সরকারের বর্তমান ও পূর্ববর্তি মেয়াদ মিলিয়ে গত আট বছরের সকল কার্যক্রম দেশে ও বিদেশে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে। তবে এ কৃতিত্বের পেছনে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও বিশেষ অবদান রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পাওয়ার এন্ড এনার্জি রিসার্চ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ড. আহমদ কায়কাউস। সমাপনী অনুষ্ঠানে এবছর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে অবদান রাখার জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরীতে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে জাতীয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ-২০১৬ সমাপ্ত হয়।