গভীর সমুদ্রে ব্লক-১২ এ তেল গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর

ঢাকা, ১৪. ০৩. ২০১৭

আজ পেট্রোবাংলায় পেট্রোবাংলা ও পসকো দাইয়ু কর্পোরেশনের সাথে গভীর সমুদ্রে ব্লক-১২ এ তেল গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এতে মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের  উপসচিব খাদিজা নাজনীন ও পসকো দাইয়ু‘র পক্ষে কোম্পানিটির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং পেট্রোবাংলার সচিব মোঃ আসফাকুর রহমান স্বাক্ষর করেন।

প্রাথমিকভাবে এ চুক্তি ৫ বৎসরের জন্য, তবে তা আরো তিন বছর বৃদ্ধি করা যাবে। এ চুক্তি বলে সমুদ্রের ১২ নং ব্লকে ৩৫৬০ বর্গ কিলোমিটারে ১০০০ গভীর থেকে ২০০০ মিটারে দাইয়ু অনুসন্ধান করবে। ২ডি ও ৩ডি সাইসমিক সার্ভে তিন বছরের মধ্যে সম্পূর্ন করে ৪র্থ ও ৫ম বছরে কুপ খননে যাবে। তেলে ৬৫% থেকে ৯০%  ও গ্যাসে ৬০% থেকে ৮৫%  পেট্রোবাংলা প্রফিট শেয়ার থাকবে। 

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীর বিক্রম বলেন, জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমরা চারটি বিষয়ের উপর গুরুত্ব দিয়েছি, তা হলো-জরিপ, অনুসন্ধান, কুপখনন ও এলএনজি আমদানি। তিনি অনুসন্ধান কাজ দ্রুত সম্পাদন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের আহ্বান জানান। 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, জ্বালানি চাহিদা যথাসময়ে পূরণ করা হবে। এলএনজি আমদানি করা হচ্ছে, এলপিজি ব্যবহার বাড়িয়ে উদ্বৃত্ত প্রাকৃতিক গ্যাস শিল্পে দেয়া হবে। গভীর সমুদ্রের ১৫টি ব্লকের মধ্যে আজ একটি ব্লকে অনুসন্ধান শুরু হচ্ছে। বাকী গুলোতে অনুসন্ধান চালানোর উদ্যোগ নেয়া হবে। অগভীর সমুদ্রের ১১টি ব্লকের মধ্যে ইতোমধ্যে ৩টিতে কাজ চলছে, বাকীগুলোতে অনুসন্ধান চালানোর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। স্থলভাগে ১০৮ টি কুপ খনননের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। জুলাই ২০১৮ এর মধ্যে ২৮টি  কুপ খনন সম্পন্ন করা হবে। জ্বালানি নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত হবার কিছুই নেই। সরকার যথাসময়ে সকলের জন্য জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে। 

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব নাজিমউদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান আবুল মনসুর মোহাম্মদ ফয়জুল্লাহ, ও বাংলাদেশে নিযুক্ত দক্ষিণ কোরীয়ার রাষ্ট্রদূত এ এইচ এন সিয়ং দূও (A H N Seong Doo) বক্তব্য রাখেন।